You are currently viewing জিংক এর দাম, কাজ, খাওয়ার নিয়ম – Xinc

জিংক এর দাম, কাজ, খাওয়ার নিয়ম – Xinc

জিংক এর দাম

প্রতিটি ট্যাবলেটের মূল্য: ৳ ২.৭৫ (৬০ এর প্যাক: ৳ ১৬৫)

জিংক ২০ কোন রোগের ওষুধ/ জিংক ২০ এর উপকারিতা

জিংক সালফেট মনোহাইড্রেট,জিংকের ঘাটতি এ রোধে ব্যবহার করা হয়। ডায়েট বা অপুষ্টিহীনতার ফলে জিংকের ঘাটতি দেখা দিতে পারে। জিংকের অভাব দেখা দিলে ডায়রিয়া, প্রোটিন লস ইত্যাদি উপসর্গ দেখা দিতে পারে। 

যেভাবে কাজ করে

জিংক সালফেট মনোহাইড্রেট একটি প্রয়োজনীয় খনিজ উপাদান এবং শরীরের এনজাইম সিস্টেমে জড়িত। শরীরের স্বাভাবিক বৃদ্ধি এবং স্বাস্থ্যের জন্য জিংক প্রয়োজন। যৌন পরিপক্কতা এবং প্রজনন, অন্ধকার দৃষ্টি অভিযোজন, ঘ্রাণ এবং হজম, ইনসুলিন স্টোরেজ এবং বিভিন্ন হোস্ট ইমিউন প্রতিরক্ষার জন্য জিংক জরুরী। জিংকের ঘাটতি অনাক্রম্য প্রতিরোধের ক্রিয়া, বিলম্বিত ক্ষত নিরাময়, স্বাদ এবং গন্ধের অনুভূতি হ্রাস, সংক্রমণের বিরুদ্ধে লড়াই করার ক্ষমতাহীনতা, গর্ভপাতের ঝুঁকি বৃদ্ধি, এলোপেসিয়া, মানসিক আলস্যতা, ত্বকের পরিবর্তন ইত্যাদি করে।

ডোজ

১০ কেজি কম বয়সী শিশু: ৫ মিলি (১ চা চামচ) খাওয়ার পরে প্রতিদিন ২ বার।
১০-৩০ কেজি মধ্যে শিশু: ১০ মিলি (২ চা চামচ) খাবারের পরে প্রতিদিন ১-৩ বার।
প্রাপ্তবয়স্কদের এবং শিশুদের ৩০ কেজি থেকে বেশি: ২০ মিলি (৪ চা চামচ) খাবারের পরে প্রতিদিন ১-৩ বার।

যদি কমপক্ষে খাবারের ১ ঘন্টা আগে বা খাবারের ২ ঘন্টা পরে নেওয়া হয় তবে এই ড্রাগটি সবচেয়ে কার্যকর। তবে, যদি পেট খারাপ হয়, তখন খাবারের সাথে নেওয়া যেতে পারে।

মিথষ্ক্রিয়া

টেট্রাসাইক্লাইন (Tetracycline) এবং জিংক একসাথে গ্রহণের ফলে টেট্রাসাইক্লাইন এবং জিংক উভয়ের শোষণ এর হার কমে যেতে পারে। একইভাবে জিংক এবং কুইনোলোন ড্রাগ একসাথে নিলে উভয়ের শোষণ এর হার কমে যেতে পারে। পেনিসিলামাইন এবং জিংক একযোগে গ্রহণের ফলে জিংকের শোষণ কমে যেতে পারে।

সতর্কতা
  • যাদের কিডনীতে সমস্যা আছে তাদের ক্ষেত্রে জিংক নেয়ার আগে ডোস এডজাস্টমেন্ট করে নিতে হবে।
  • জিংক এর প্রতি যাদের সংবেদনশীলতা আছে তারা জিংক ট্যাবলেট গ্রহন করতে পারবে না
পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া
  • বমি বমি ভাব
  • বমি
  • ডায়রিয়া
  • পেট ব্যাথা
  • গ্যাস্ট্রাইটিস
সংরক্ষণ

৩০ ডিগ্রি সেন্টিগ্রেডের নিচে শীতল ও শুকনো জায়গায় সংরক্ষণ করুন, আলো এবং আর্দ্রতা থেকে রক্ষা করুন। শিশুদের নাগালের বাইরে রাখুন।

জিংকের উৎস/ জিংক সমৃদ্ধ খাবার
  • মাংস
  • ডিম
  • শাকসবজি
  • শস্য জাতীয় খাবার
  • বাদাম
  • ডার্ক চকলেট
  • দুধ
জিংক সাপ্লিমেন্ট
  • বেবি জিংক [একমি ল্যবরেটরিস]
  • ডিসপাজিংক [এসিআই লিমিটেড]
  • জিডেক্স ২০ [বেক্সিমকো ফার্মা]
জিংক সালফেট

জিংক সালফেট মনোহাইড্রেট,জিংকের ঘাটতি এ রোধে ব্যবহার করা হয়। ডায়েট বা অপুষ্টিহীনতার ফলে জিংকের ঘাটতি দেখা দিতে পারে। জিংকের অভাব দেখা দিলে ডায়রিয়া, প্রোটিন লস ইত্যাদি উপসর্গ দেখা দিতে পারে। 

**স্বাস্থ্যঝুকি এড়াতে সেবনের আগে এবং সেবন বন্ধ করার পূর্বে বিশেষজ্ঞ ডাক্তারের পরামর্শ নেবেন।

Rayhan Hossain

rayhanhossen375@gmail.com

Leave a Reply